কুরবানী নিয়ে কিছু মূর্খের অযথা চিল্লাচিল্লি

তাই তো বলি বাংলাদেশের রিয়েল স্টেট ব্যবসার এত কঠিন অবস্থা কেন ? সরদার আমিনদের মত রিয়েল স্টেট ব্যবসায়ীদের মাথায় যদি এত কম ঘেলু থাকে, তবে কি ব্যবসার অবস্থা ভালো থাকতে পারে ? সত্যি বলতে, দুই-চারটা বই লিখলে আর টকশোতে এসে হাত দুলিয়ে দুলিয়ে কথা বললেই ঘেলু পয়দা হয় না, ঘেলু পয়দার জন্য চাই বাস্তবতার নিরিখে জ্ঞান। এদের অন্তত এখনও বোঝা উচিত ফালতু সোস্যালিজম জ্ঞান দিয়ে দুনিয়া চলবে না, যদি চলতো সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙ্গে ১৫ টুকরো হতো না, সারা দুনিয়া সোভিয়েতে প্রবেশ করতো।

তাই যারা কোরবানীর গরুর কল্লা দেখে ভয় পান, তারা আজ থেকে শপথ করুন, সারা জীবন ভেজিটেরিয়ান হয়ে থাকবেন। দাতের ফাকে মাংশের টুকরো আটকে রেখে গরুর কল্লার মায়ায় কাঁদবেন সেটা তো হবে না। বাসায় সারাদিন মেটাল গান বাজবেন আর কোরবানীর সময় শব্দ দূষণ খুজে পাবেন সেটাও হবে না।
আর ‘পশু কোরবানী দিয়ে মনের পশুকে হত্যা’, এটাতো খুব সোজা। মানুষ যেমন ভালোবাসে তার পুত্রকে, ঠিক তেমনি ভালোবাসে পকেটের টাকাকে। যেহেতু পুত্রকে কোরবানী দেওয়া সম্ভব নয়, তাই টাকা খরচ করে সব থেকে তাগড়া পশু কোরবানী করে মনের ভেতর কৃপনতা নামক পশুকে বধ করতে হবে। এরপর সেটাকে বণ্টন করে দিতে হবে গরীব-দুঃখিদের মাঝে। এই তো হয়ে গেলো মনের পশু বধ।
সত্যিই বলতে, সরদার আমিনদের মত লোকেরা কিছু একটা বলে-কয়ে খুব সুশীল সাজার প্রানান্তর চেষ্টা করে, কিন্তু শেষের কথায় বুঝিয়ে দেয় আসলে সে কিছুই জানে না, একটা পাক্কা গণ্ডমূর্খ । এক কোরবানীর ঈদ দিয়ে বাংলাদেশের অর্থনীতির কত বড় এবং কত ধরনের উপকার হয় সেটা বুঝার জন্য খুব বেশি জ্ঞানী হওয়ার প্রয়োজন নেই, তবে যারা গো-মূর্খ তাদের পক্ষে নয়।
স্ট্যাটাস সূত্র:
www.facebook.com/sardar.amin1/posts/889541101138231
নয়ন চ্যাটার্জি's photo.
Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s